বুধবার, ৬ জুলাই ২০২২ | ২২শে আষাঢ় ১৪২৯

প্রথম হওয়া বিষয় নয়, কার্যকর টিকাই আসল: যুক্তরাষ্ট্র

Alex Azar II testifies before the Senate Finance Committee on his nomination to be Health and Human Services secretary in Washington, U.S., January 9, 2018. REUTERS/Joshua Roberts - RC121DF4D2F0

জাগরণ ডেস্ক //

বিশ্বে প্রথম রাশিয়া করোনাভাইরাসের টিকা অনুমোদনের ঘোষণা দেওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রী অ্যালেক্স আজার বলেছেন, আগামী ডিসেম্বর নাগাদ করোনাভাইরাসের টিকা অনুমোদন দেওয়ার আশা করছেন তারা। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ‘সব ধরনের প্রক্রিয়া মেনে’ নতুন টিকা তৈরি এবং তা ‘ভালো কাজ করে’ বলে দাবি করেছেন, যদিও এর কার্যকারিতা নিয়ে সন্দিহান পশ্চিমা বিশেষজ্ঞরা। পুতিনের ওই ঘোষণার পর মঙ্গলবার সকালে যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ বিষয়ে বক্তব্য রেখেছেন বলে গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। অ্যালেক্স আজার বলেছেন, “প্রথম হওয়াটাই বিষয় নয়। গুরুত্বপূর্ণ হল এমন একটি টিকা পাওয়া, যেটা আমেরিকার জনগণ ও বিশ্বের মানুষের জন্য নিরাপদ ও কার্যকর হবে।”

দুই মাসেরও কম সময় মানবদেহে পরীক্ষা চালিয়েই একটি কোভিড-১৯ টিকা অনুমোদন দিয়েছে রাশিয়া। এই টিকার একটি ডোজ নিজের এক মেয়েকেও দেওয়া হয়েছে বলে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন জানিয়েছেন। রাশিয়ান ডাইরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের প্রধান কিরিল দিমিত্রিয়েভ বলেছেন, ‘স্পুৎনিক ফাইভ’ ব্র্যান্ড নামে এই টিকা বিদেশে বাজারজাত করা হবে। এরইমধ্যে বিশ্বের ২০টির বেশি দেশ থেকে ১০০ কোটি ডোজ সরবরাহের অনুরোধ পেয়েছেন তারা।

করোনাভাইরাসের এই টিকাকে বিজ্ঞানে রাশিয়ার শক্তির প্রমাণ হিসেবে চিত্রিত করেছেন পুতিন। তবে টিকার চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য প্রয়োজনীয় তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা ‘যথাযথ না হওয়ায়’ পশ্চিমারা এই টিকার কার্যকারিতা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রী আজার বলেন, “আমাদের স্বচ্ছ তথ্য প্রয়োজন। তৃতীয় ধাপের পরীক্ষার তথ্য থাকতে হবে, যা টিকা নিরাপদ ও কার্যকর বলে প্রমাণ দেবে।” এবিসি’র গুড মর্নিং আমেরিকা শোয়ে আজার বলেন, আমেরিকায় করোনাভাইরাসের ছয়টি টিকা এখন পরীক্ষার পর্যায়ে আছে।

“আমরা বিশ্বাস করি, ডিসেম্বর নাগাদ এফডিএ’র গোল্ড স্ট্যান্ডার্ডের লাখ লাখ ডোজ এবং নতুন বছরে কোটি কোটি ডোজ পাওয়ার সঠিক পথে আমরা আছি।” তবে যুক্তরাষ্ট্রে তৃতীয় ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে থাকা মডার্নার টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগের ফল ২০২১ সালের আগে পাওয়া যাবে না বলে প্রকাশিত খবরের বিষয়ে আজারের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়।

সংবাদটি আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন