রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ১২ই অগ্রহায়ণ ১৪২৯

৩ দিনে প্রায় ১৬০০ বিলবোর্ড-সাইনবোর্ড সরিয়েছে ডিএনসিসি

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) এলাকায় গত তিনদিনে প্রায় ১৬০০ অবৈধ বিলবোর্ড, সাইনবোর্ড, শপসাইন, প্রজেক্ট সাইন অপসারণ করা হয়েছে। গত ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত এ অভিযান পরিচালিত হয়।

এদিকে শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সাপ্তাহিক ছুটির দিনেও রাজধানীর বনানী চেয়ারম্যান বাড়ি এলাকায় সকাল থেকে অবৈধ বিলবোর্ড, সাইনবোর্ড অপসারণে অভিযান চালানো হচ্ছে।

গত তিনদিনে অবৈধ বিলবোর্ড, সাইনবোর্ড অপসারণের বিষয়ে ডিএনসিসির প্রধান জনসংযোগ কর্মকর্তা এ এস এম মামুন জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) তিন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের পরিচালনায় গুলশান, বনানী ও প্রগতি সরণিতে অভিযান চালানো হয়েছে। অভিযানে প্রায় সাত শতাধিক অবৈধ সাইনবোর্ড উচ্ছেদ করা হয়। এছাড়া স্পট নিলামের মাধ্যমে এসব সাইনবোর্ড ও অন্যান্য মালামাল এক লাখ ৭৭ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়। ফুটপাত ও সড়ক দখল করে ব্যবসা, ট্রেড লাইসেন্স না থাকা, সরকারি কাজে বাধা এবং অন্যান্য অপরাধে এক লাখ ৯১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) একই এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে আরও প্রায় ৬২০টি অবৈধ সাইনবোর্ড উচ্ছেদ করা হয়। এছাড়া স্পট নিলামের মাধ্যমে এসব সাইনবোর্ড ও অন্যান্য মালামাল এক লাখ ৭৯ হাজার ৫০০ টাকায় বিক্রি করা হয়। ফুটপাত ও সড়ক দখল করে ব্যবসা, ট্রেড লাইসেন্স না থাকা এবং অন্যান্য অপরাধে ৯৭ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়াঅভিযানের প্রথম দিন (১৫ সেপ্টেম্বর) প্রায় ৩০০ সাইনবোর্ড ও বিলবোর্ড উচ্ছেদ করা হয়। এরমধ্যে গুলশান ২ এ প্রায় ১৫০টি অবৈধ সাইনবোর্ড ও বিলবোর্ড অপসারণ করা হয়। অন্যদিকে বনানী ১১ নম্বর সড়কে প্রায় শতাধিক সাইনবোর্ড ও বিলবোর্ড উচ্ছেদ করা হয়। এছাড়া সড়ক ও ফুটপাত অবৈধভাবে দখল করে চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টির কারণে কয়েকটি প্রতিষ্ঠানকে মোট ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এছাড়া প্রগতি সরণিতে অভিযানে মোট ৫২টি সাইনবোর্ড, বিলবোর্ড উচ্ছেদ করা হয়। এছাড়া ফুটপাত ও সড়কে অবৈধভাবে মালামাল রাখায় তা নিলামে ৬৬ হাজার ৭০০ টাকা নিলামে বিক্রয় করা হয় এবং ৯টি মামলায় ৪৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

সংবাদটি আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন