শুক্রবার, ৭ অক্টোবর ২০২২ | ২২শে আশ্বিন ১৪২৯

শেখ হাসিনা কালো তালিকাভুক্ত দেশে নতুন আশার সঞ্চার করেছেন: তাপস

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মাত্র ১২ বছরের মধ্যে একটি ভঙ্গুর দেশে, কালো তালিকাভুক্ত একটি দেশে নতুন আস্থা, নতুন আশার সঞ্চার করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

আজ রোববার (১৫ নভেম্বর) সকালে নগর ভবনে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কর কর্মকর্তা ও সহকারী কর কর্মকর্তাদের ই-রেভিনিউ ও ই-ট্রেড লাইসেন্স সংক্রান্ত সপ্তাহব্যাপী প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের উদ্বোধনকালে এ মন্তব্য করেন।

তাপস বলেন, ‘সিঙ্গাপুরের জাতির পিতা লি কন ইউ অবকাঠামোগত উন্নয়নকে দু’ভাগে ভাগ করেছিলেন। একটি হলো হার্ড ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট, আরেকটি হলো সফট ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট। বাড়ি-ঘর, রাস্তা-ঘাটের উন্নয়ন এসব হার্ড ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট। আর আর এই হার ইনফ্রাস্ট্রাকচার পরিচালনার জন্য যে মেধা দরকার, যে সক্ষমতা দরকার, যে প্রশিক্ষণ দরকার, যে মানবসম্পদ উন্নয়ন দরকার সেটাই হলো সফট ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট। সুতরাং সকল কিছুর চালিকা শক্তিই হলো মানবসম্পদ উন্নয়ন।’

শেখ তাপস এ সময় আরও বলেন, ‘১২ বছর আগেও আমাদের মেধাবী ছেলে-মেয়েরা সবাই বিদেশে পাড়ি দিত। তারা মনে করত, এ দেশে কাজ করার সুযোগ নাই। কিন্তু এখন আমাদের মেধাবী ছেলে-মেয়েরা দেশে ফিরে আসছে। তারা এখন পড়াশোনা শেষ করে মনে করছে, আমিও আমার দেশের জন্য কিছু করতে পারব। আমারও সুযোগ হবে দেশের জন্য কিছু করার এবং তারা দেশে ফিরে আসছে। এটাই হলো সফট ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট। কারণ, আমরা আমাদের সক্ষমতা বৃদ্ধি করতে পেরেছি এবং সে অনুযায়ী বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর সুযোগ হয়েছে।’

এই প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কর কর্মকর্তাদের সক্ষমতা আরেকটি ধাপে এগিয়ে যাওয়া উল্লেখ করে ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস আরও বলেন, যারা এই অনলাইন সিস্টেম ডেভেলপ করেছে তারাও আমাদের সক্ষমতা না থাকায় এই সিস্টেম আমাদের কাছে হস্তান্তর করতে পারছিল না। এই প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আমাদের সক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে এবং আমরা নিজেরাই ঢাকাবাসীর কাছে অনলাইনে ই- রেভিনিউ ও ই-ট্রেড লাইসেন্স সুবিধা পৌঁছে দেব।

সংবাদটি আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন