সোমবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২১ | ২১শে অগ্রহায়ণ ১৪২৮

অনুভূতির বাংলাদেশ এর মানববন্ধন

জাগরণ ডেস্ক //

কুষ্টিয়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে ‘অনুভূতির বাংলাদেশ’।

বুধবার শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে এ মানববন্ধন হয়। মানববন্ধনে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ, বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদ ও স্মৃতি পাঠাগার ছাত্র ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় নেতারা অংশগ্রহণ করেন।

মানববন্ধনে ‘অনুভূতি’র বাংলাদেশ’ এর পক্ষে সভাপতিত্বে করেন শেখ রাসেল এবং পরিচালনা করেন আরিফুজ্জামান রোহান। বক্তব্য রাখেন দেশবরেণ্য ভাস্কর শিল্পী রাশা, অনুভূতি’র বাংলাদেশ এর শীর্ষ সংগঠক কামরুজ্জামান সুইট, মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের কেন্দ্রীয় সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল, সাধারণ সম্পাদক আল মামুন, মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের ঢাবি সভাপতি সনেট মাহমুদসহ অনেকে।

ভাস্কর শিল্পী রাশা বলেন, ‘পাকিস্তানের প্রেতাত্মারা হুমকি দেয়ার পরও কেন তাদেরকে গ্রেফতার করা হচ্ছেনা? মাদ্রাসায় সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের প্রতিনিধি দিয়ে মনিটরিং সেল গঠন করতে হবে।’

কামরুজ্জামান সুইট বলেন, ‘জাতির পিতার ভাস্কর্যে আঘাত করার সাহস দেখিয়ে তারা তাদের আসল পরিচয় প্রকাশ করেন। তারা ধর্মানুভূুতিকে পূঁজি করে সহজ সরল মুসলমানদের বিভ্রান্ত করছে। বাংলাদেশ এবং জাতির পিতার প্রশ্নে অনুভূতির বাংলাদেশ আগামী দিনেও সকল প্রগতিশীল সংগঠন অপশক্তির বিরদ্ধে রাজপথে সরব থাকবে।’

মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের কেন্দ্রীয় সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল বলেন, মুক্তিযুদ্ধের শক্তি একত্রিত হয়ে এই ধর্মব্যবসায়ীদের উৎখাত করা হবে। দেশরত্ব শেখ হাসিনা আছেন বলেই আমরা আজ শাহবাগে দাঁড়াতে পেরেছি। পাকিস্তানের প্রেতাত্মাদের এই বাংলাদেশ থেকে উৎখাত করে ছাড়বো ইনশাল্লাহ।’

মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আল মামুন বলেন, মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি সারাদেশে তাদের বিরুদ্ধে সর্বত্র সজাগ এবং হুঁশিয়ারি দিয়ে তাদের প্রতিহত করই আমাদের অঙ্গিকার। এই ধর্মব্যবসায়ীরা পাকিস্তানের এজেন্ট।

সভাপতির বক্তব্যে শেখ রাসেল অপশক্তির বিরুদ্ধে অতীতের ন্যায় রাজপথে প্রতিহত করার আহবান জানিয়ে সমাপনী বক্তব্য প্রদান করেন।

আরিফুজ্জামান রোহান বলেন, ‘জঙ্গিবাদ ও মৌলবাদের আস্তানা বাংলাদেশে হবে না।’ সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

সংবাদটি আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন