রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ১৩ই অগ্রহায়ণ ১৪২৮

ফাইজারের টিকা আসছে রবিবার

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রতিরোধী ফাইজার ও বায়োএনটেকের টিকার এক লাখ ৬২০ ডোজ দেশে আসছে আগামী ৩০ মে (রবিবার)।দেশে ব্যবহারের অনুমোদন পাওয়ার দিনই এই টিকার প্রথম চালান আসার সুখবর মিলল।

বৃহস্পতিবার (২৭ মে) রাতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের জনসংযোগ কর্মকর্তা মাইদুল ইসলাম প্রধান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, জাতিসংঘের টিকাজোট কোভ্যাক্স থেকে করোনা টিকার প্রথম চালান আগামী রবিবার রাত ১১টা ২০ মিনিটে কাতার এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে দেশে পৌঁছাবে। প্রথম চালানে ফাইজারের এক লাখ ৬০০ ডোজ টিকা আসবে।

এর আগে, ফাইজারের তৈরি টিকা বাংলাদেশে জরুরি ব্যবহারের জন্য অনুমোদন দেয় ওষুধ প্রশাসন অধিদফতর। বৃহস্পতিবার (২৭ মে) ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ মে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকার ইমার্জেন্সি ইউজ অথরাইজেশনের জন্য ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরে আবেদন করে। পরদিন অধিদফতর ভ্যাকসিনটির ডোসিয়ার (ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল পার্ট, সিএমসি পার্ট এবং রেগুলেটরি স্ট্যাটাস) মূল্যায়ন করে এ সংক্রান্ত গঠিত কমিটির মতামতের জন্য উপস্থাপন করে।

অধিদফতর জানায়, ১২ বছরের বেশি বয়সের মানুষের জন্য এই টিকা ব্যবহারযোগ্য। তবে বাংলাদেশে সরকারের ডেপ্লয়মেন্ট প্ল্যান অনুযায়ী নির্ধারিত বয়সের ব্যক্তিদের মধ্যে প্রদান করা হবে। ফাইজারের টিকার প্রথম ডোজের তিন থেকে চার সপ্তাহ পর দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হবে।

ফাইজারের এই টিকা মাইনাস ৯০ ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে মাইনাস ৬০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে সংরক্ষণ করতে হবে। তবে টিকাটি পাঁচ দিন ২ ডিগ্রি থেকে ৮ ডিগ্রি তাপমাত্রায় ও ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় ২ ঘণ্টা পর্যন্ত স্থিতিশীল থাকবে বলে জানিয়েছে ওষুধ প্রশাসন অধিদফতর।

সংবাদটি আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন