শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২২ | ১৪ই মাঘ ১৪২৮

নিজেদের ফেভারিট মানছেন না ইতালি কোচ

রোমের স্তাদিও অলিম্পিকোয় ‘এ’ গ্রুপে বুধবার সুইজারল্যান্ডকে ৩-০ গোলে হারায় ইতালি। দুই অর্ধে একটি করে গোল করেন মানুয়েল লোকাতেল্লি, আর শেষ দিকে ব্যবধান বাড়ান চিরো ইম্মোবিলে।সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা ২৯ ম্যাচ অপরাজিত ইতালি। আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচে তারা তুরস্ককেও হারিয়েছিল একই ব্যবধানে। দলের এমন দুর্দান্ত ফর্মই বাড়িয়ে দিয়েছে ইতালি সমর্থকদের আশা। প্রত্যাশা এবার শিরোপা জয়ের। স্বপ্ন হয়ত দেখছেন মানচিনি নিজেও; কিন্তু ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে আসরের ফেভারিট প্রশ্নে নিজেদের সেই কাতারে রাখলেন না তিনি।“ফ্রান্স, পর্তুগাল আর বেলজিয়াম ইউরোর ফেভারিট। এক দল বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন, এক দল ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন আর অন্য দলটি বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে।”
দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছে ইতালি ফুটবল দল।
“এই দলগুলো বেশ কয়েক বছর ধরে গড়ে উঠেছে এবং উন্নতির দিক দিয়ে তারা আমাদের চেয়ে এগিয়ে। তবে ফুটবলে যে কোনা কিছুই সম্ভব।”দলে উন্নতির আরও জায়গা দেখছেন ২০১৮ সালের মে মাসে দায়িত্বে আসা ৫৬ বছর বয়সী মানচিনি। “উন্নতির জায়গা আছে। আমাদের এমন কিছু তরুণ খেলোয়াড় আছে যারা এমনকি ক্লাব পর্যায়ে ইউরোপিয়ান কাপেও খেলেনি। তাই ওদের অনেক উন্নতি করতে হবে।”একই মাঠে আগামী শনিবার ইতালির প্রতিপক্ষ ওয়েলস। ম্যাচটিতে হারলে গ্রুপের দ্বিতীয় হয়ে পরের রাউন্ডে যেতে হবে মানচিনির দলকে।সুইজারল্যান্ড ম্যাচের প্রথমার্ধে চোটের কারণে অধিনায়ক জর্জো কিয়েল্লিনিকে হারায় ইতালি। দলের বাকিদের ফিট রাখতে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে কাউকে বিশ্রাম দিবেন কিনা বা ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খেলাবেন কিনা, তা খেলোয়াড়দের শারীরিক অবস্থার ওপর নির্ভর করবে বলে জানালেন কোচ।“আমরা খেলোয়াড়দের অবস্থা কেমন থাকে দেখব, কারণ এটা ছিল খুব কঠিন একটা ম্যাচ, কিছু খেলোয়াড় শেষ দিকে খুব ক্লান্ত হয়ে পড়েছিল। আগামী দুদিন আমরা দেখব তারপর সিদ্ধান্ত নেব।”

সংবাদটি আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন